মেনু নির্বাচন করুন

দৌলখান মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

  • সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
  • প্রতিষ্ঠাকাল
  • ইতিহাস
  • প্রধান শিক্ষক/ অধ্যক্ষ
  • অন্যান্য শিক্ষকদের তালিকা
  • ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণীভিত্তিক)
  • পাশের হার
  • বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য
  • বিগত ৫ বছরের সমাপনী/পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল
  • শিক্ষাবৃত্ত তথ্যসমুহ
  • অর্জন
  • ভবিষৎ পরিকল্পনা
  • ফটোগ্যালারী
  • যোগাযোগ
  • মেধাবী ছাত্রবৃন্দ

১৯৭০ সালে প্রাক্তন সংসদ সদস্য জনাব নজরুল ইসলাম বিদ্যালয়টি প্রতিষ্টা করেন। ১৯৭৩ সালে বিদ্যালয়টি সরকারি করন করা

হয়। ১৯৯৫ সালে বিদ্যালয়টি দৌলখান থানার মডেল বিদ্যায়ল হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে।

১৯৭০

ইতিহাস ( বর্ননা আকারে)

প্রাথমিক কথাঃপৃথিবীর বৃহত্তম গাঙ্গেয় ব-দ্বীপ ভোলা জেলার একটি গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা হল দৌলতখান। এক সময় এই দৌলতখানই ছিল ভোলা জেলার প্রানকেন্দ্র, ছিল মহকুমার সদর। দৌলতখান ভদ্র লোকের বাসস্থান হিসেবে পরিচিত। শিক্ষা ,সভ্যতা ,নম্রতা, ভদ্রতা ও সাংস্কৃতিক দিক দিয়ে দৌলতখান উপজেলার সুনাম ছিল সবার মুখে মুখে । এই ঐতিহ্য বাহী দৌলতখানের নামেই ১৯৭০ সালে সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস ও প্রলয়ংকরী ঘূর্ণিঝড় বিভীষিকাময় রূপকে পাশ কাটিয়ে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে  দেয়ার দীপ্ত অঙ্গিকার নিয়ে মাত্র ১০ শতাংশ ভূমিতে স্থাপিত হয় বিদ্যালয়টি।  ১৯৭৩ সালে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের চাকুরী জাতীয়করন করে বিদ্যালয়টি সরকারি করণ করা হয় । বর্তমানে বিদ্যালয়ে ৩টি পাকা ঘর রয়েছে, যার কক্ষ সংখ্যা ১২। এখানে পড়া লেখা করছে ৫৫০ জন ছাত্রছাত্রী।

            দৌলতখান বালিকা বিদ্যালয়ের কমপাউ‎‎ন্ডে স্থাপিত এ প্রতিষ্ঠানের  পৃষ্ঠপোষকতায় ছিলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য জনাব মো: নজরুল ইসলাম, জনাব এফ কে এম ইব্রাহীম , জনাব মো: এনামুল হক লালমিয়া, জনাব মো: ওবায়দুল হক মিয়া, জনাব মো: সেলিম মিয়া, জনাব মো: আলী হোসাইন, জনাব মো: বজলূর রহমান পাটোয়ারি, জনাব আবদুল মন্নান মিয়া প্রমুখ। 

বিদ্যালয় কার্যক্রম পরিচালনার জন্য স্থানীয় ভাবে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি ৫ জন শিক্ষিকা নিয়োগ প্রদান করেন । তারা হলেন, রাজিয়া সুলতানা (প্রধান শিক্ষিকা),  লুৎফা ইয়াছমিন, সুলতানা বেগম, আবজুন নাহার, মাহেনুর বেগম। 

১৯৭৩ সালে তৎকালিন সরকার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের চাকুরী জাতীয়করণ করলে  শিক্ষার গুনগত মান বাড়ানোর লক্ষ্যে তৎকালীন স্থানীয় সংসদ সদস্য জনাব মোঃনজরুল ইসলাম ও অন্যান্য শিক্ষানুরাগী গুনীজনের আগ্রহে  বরিশাল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এর আদেশ বলে ১৯৭৬ সনের ১৪ মার্চ ভোলা পৌর বালিকা সরকারী প্রাঃবিদ্যালয় এর প্রধান শিক্ষক জনাব মোঃ আলী হোসাইনকে দৌলতখান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বদলী করা হয় । তাঁর দক্ষতা, সঠিক পরিচালনা ও সহকর্মী নারায়ন চন্দ্র দাস আল হাজ্ব আবদুল মতিন, মিসেস মেহেনুর নাহার, মিসেস মনজিলা চৌধুরী, মিসেস তাছলিমা বেগম, হরিহার চন্দ্র দাস, মিসেস খালেদা আকতার, মিসেস অলোকারানী কুন্ডু এর আন্তরিকতায় বিদ্যালয়টির সুনাম দিন দিন ছড়িয়ে পড়তে থাকে। নতুন সাজে সজ্জিত হয় লাইব্রেরীসহ সকল কক্ষ, দেয়ালে প্রদর্শিত হয় বিভিন্ন কৃতির্ত্বের তথ্য সমূহ।

প্রকাশ থাকে যে, প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষায় ১৯৮৪ সাল থেকে ২০১২সাল পর্যন্ত ২৪৬ জন শিক্ষার্থী বৃত্তি প্রাপ্ত হয়। তন্মধ্যে একাধিকবার জাতীয় পর্যায়ে বিদ্যালয়টি মেধা তালিকায় স্থান দখল করে।

  এছাড়া শ্রেষ্ঠ শিশু শিল্পী বাছাই, শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয়, শ্রেষ্ঠ শিক্ষক  ও কাব স্কাউটসহ সকল প্রতিযোগীতায় উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে একক কৃতিত্বের পরিচয় দিয়ে বিভাগ ও জাতীয় পর্যায়ে একাধিকবার ১ম ও ২য় স্থান অধিকার করে। যার স্বীকৃতি স্বরূপ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর স্মারক নং ১৩০/৯৪/৩২/৪৮১ তারিখ ২০/১০/১৯৯৫ মোতাবেক বিদ্যালয়টি ‘‘মডেল ’’ বিদ্যালয়ের স্বীকৃতি লাভ করে। 

১৭/০৯/১৯৯৬ তারিখে প্রধান শিক্ষক জনাব মোঃ আলী হোসাইন অত্যন্ত সুনামের সাথে অবসর গ্রহন করেন। বর্তমানে ম্যনেজিং কমিটি, অভিভাবক সমিতি, শিক্ষক/ শিক্ষিকাদের অনুরোধক্রমে বিদ্যালযের বিভিন্ন কর্মকান্ডে বিশেষ করে ৫ম শ্রেণী সমাপনী ও বৃত্তি পরীক্ষার্থী ছাত্রছাত্রীদের ইংরেজী বিষয়ে পাঠদান করে যাচ্ছেন। সফল শিক্ষক হিসেবে তাকে  শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন, পর্যায়ক্রমে সহকারি পরিচালক ও যুগ্ম সচিব প্রাথমিক শিক্ষা, ভাষা সৈনিক লুৎফর রহমান, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ভোলা জনাব এ,কে,এম সালাউদ্দিন, তৎকালীন থানা নির্বাহী অফিসার বর্তমানে অতিরিক্ত সচিব (বানিজ্য মন্ত্রনালয়) জে,এন বিশ্বাস, বর্তমানে সংস্থাপন মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব জনাব  আলী আহম্মদ, সাবেক ঢাকা বোর্ডের কন্ট্রলার ও দৌলতখান আবু আবদুল্লা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ জনাব মোঃ জাকির হোসেন অধ্যক্ষ এ,এফ, এম, গোলাম কিবরিয়াসহ অনেকে।

এরপর সুনামের সাথে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন, হরিহরচন্দ্র দাস (১৮/০৯/৯৬-২৯/১০/৯৬/) মো: শাহাজান (৩০/১০/৯৬/-১৩/১২/২০১১) এবং মেহেরুন নাহার ১৪/১২/২০১১ ( চলতি দায়িত্বে)

সহকারি শিক্ষক হিসেবে যথাক্রমে লুৎফা ইয়াছমিন, সুলতানা বেগম, আবজুন নাহার,  মাহেনুর বেগম, বেলায়েত হোসেন, রুহুল অমিন, আবুল কাশেম, রাশেদা বেগম, আবদুল মতিন, আবুল কাশেম,  মেহেরুন নেছা। বর্তমানে  মিসেস মনজিলা চৌধুরী,তাছলিমা বেগম,  খালেদা আকতার, অলোকা রানী কুন্ডু , কানির্জ ফাতেমা, মায়া রানী, হাসনে আরা বেগম, বকুল নেছা, খাদিজা বেগম কর্মরত আছেন।

অত্র  বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র/ছাত্রীদের মধ্যে অনেকেই কর্মজীবনে  সাফল্য অর্জন  করেছে যেমন, জামসেদ জং চৌধুরী, মো:ইব্রাহীম, শাহারুল ইসলাম, মাহবুবুর রহমান, খায়রুন নেছা, জাফর আহম্মদ,শাখাওয়াত হোসেন, প্রদীপ চন্দ্র রায়, হুমায়ুন কবির, মিজানুর রহমান,পরিমল চন্দ্র দেবনাথ, বিপুল চন্দ্র দেবনাথ, নবদ্বীপ চন্দ্র রায়, প্রিয়াংকা দাস, সেলিনা সিদ্দিকা, সহ প্রমুখ।

 বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় জাতীয় পর্যায়ে কৃতিত্ব অর্জন করেছে সালমা পারভীন, সামছুন নাহার, কুদরত উল্লাহ, জান্নাতুল ফেরদাউছ,  আহসান আল মাহমুদ, শারিক  মাহমুদ সান, মল্লিকা দাস টুম্পা, সালমা পারভীন, আরও অনেকে ।

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল
মেহেরুন নাহার ০১৭১৮১৫৭৬০১ daulatkhanmodelgps@gmail.com

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

১০০%

বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য                      ঃ

নাম

পদবী

ক্যাটাগরী

 

গোলাম নবী নবু

সভাপতি

শিক্ষানুরাগী

মোঃ সিরাজ মিয়া

সহসভাপতি

ছাত্র/ছাত্রী অভিভাবক

রাফিয়া আকতার

সদস্য

শিক্ষানুরাগী

মোঃ সফিকুল ইসলম

সদস্য

মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রতিনিধি

মোঃ গজনবী

সদস্য

ছাত্র/ছাত্রী অভিভাবক

খালেদা খানম

সদস্য

ছাত্র/ছাত্রী অভিভাবক

মারজিয়া বেগম

সদস্য

ছাত্র/ছাত্রী অভিভাবক

আবুল ফারাহ মিয়া

সদস্য

কমিশনার

খালেদা আকতার

সদস্য

শিক্ষক প্রতিনিধি

মেহেরুন নাহার

সদস্য সচিব

প্রধান শিক্ষক

 

১২&। বিগত ০৫ বছরের পরীক্ষার ফলাফল          ঃ

 

পাসের সন

সমাপনী

২০০৮

১০০%

২০০৯

১০০%

২০১০

১০০%

২০১১

১০০%

২০১২

১০০%

 

সন

ট্যালেন্টপুল

সাধারন বৃত্তি

২০০৮

০৮

০৯

২০০৯

০৬

০৭

২০১০

০৭

০৯

২০১১

০৫

১৫

২০১২

০৮

১২

১৯৯৪ সালে একক অভিনয়ে জাতীয় পর্যায়ে ১ম স্থান, ১৯৯৫ সালে বরিশাল বিভাগে শ্রেষ্ঠ কাব  এবং ভোলা জেলায় শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয় নির্বাচিত। ২০০০ সালে একক অভিনয়ে জাতীয় পর্যায়ে ২য় স্থান এবং উপস্থিত বক্তৃতায় ৩য় স্থান দখল। ২০০৩ সালে বৃত্তি পরীক্ষার ফলাফলে বরিশাল বিভাগে ১ম স্থান। ২০০৪ সালে বৃত্তি পরীক্ষার ফলাফলে জাতীয় পর্যায়ে ২য়। ২০০৫ সালে বৃত্তি পরীক্ষার ফলাফলে বরিশাল বিভাগে ১ম স্থান। ২০০৬ সাল থেকে ২০১০ পর্যমত্ম বৃত্তি পরীক্ষার ফলাফলে জেলায় শ্রেষ্ঠ। ২০১১ সালে বিভাগে সেরা ১০০ শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয়ের মধ্যে ১টি। এবং ২০১২ সালে ভোলা জেলায় শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয় নির্বাচিত।

আমরা আমাদের বিদ্যালয়কে সর্বাঙ্গীন সুন্দর একটি আধুনিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে

তুলতে চাই।

বিদ্যালয়টি দৌলতখান উপজেলার প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত।



Share with :

Facebook Twitter